দেশে সবাই নিরাপত্তাহীন জীবন যাপন করছে : সেলিমা-নিপুণ

দেশে নারী ও শিশু থেকে শুরু করে বিরোধীমতের মানুষ-কারো জীবনের নিরাপত্তা নেই বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বিএনপিপন্থী নারী ও শিশু অধিকার ফোরাম।

শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) এক যৌথ বিবৃতিতে এমন উদ্বেগ প্রকাশ করেন সংগঠনটির আহ্বায়ক ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান এবং সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট নিপুণ রায় চৌধুরী।

ঢাকার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানাধীন মীরেরবাগ এলাকার বাসিন্দা এক নারীকে ধর্ষণের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে নারী ও শিশু অধিকার ফোরাম। পাশাপাশি দুষ্কৃতকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে তারা।

নারী ও শিশু অধিকার ফোরাম বলছে, দেশে আইনের শাসনের বিলুপ্তি ঘটিয়ে, গণতন্ত্রকে হত্যা করে নাৎসি কায়দায় দেশ পরিচালনার জন্য এখন সন্ত্রাসবাদের নির্দয় প্রতাপ চলছে। দুর্নীতি ও রক্তাক্ত সন্ত্রাসের ভাবধারায় অনুপ্রাণিত এই সরকার সারাদেশে অশান্তির বিষবাষ্প ছড়িয়ে দিচ্ছে। গত প্রায় ১২ বছর দেশে কোনো আইনের শাসন নেই। যেটা আছে তা হচ্ছে দলীয় শাসন। আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগসহ ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা অপরাধ করলেও বিচার হয় না। ফলে দেশে অরাজক পরিস্থিতি চলছে।

সেলিমা রহমান ও নিপুণ রায় চৌধুরী বিবৃতিতে বলেন, দেশে নারী ও শিশু থেকে শুরু করে বিরোধীমতের মানুষ কারো জীবনের নিরাপত্তা নেই। আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা ও জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে ছাত্রলীগ-যুবলীগ এমনকি এখন সরাসরি প্রশাসনের ব্যক্তি দ্বারা প্রতিদিনই কোথাও না কোথাও নারী-শিশু ধর্ষণ এবং ধর্ষণের পর হত্যা করা হচ্ছে। ধর্ষিতা নারী ও শিশুরা যাতে আইনের শরণাপন্ন না হতে পারে, সেজন্য প্রভাব খাটিয়ে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি এমনকি হত্যারও হুমকি দেখানো হয়।