বাঙলা কলেজ যুব থিয়েটার এর ১৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

শিক্ষা ডেস্কঃ সরকারী বাঙলা কলেজ যুব থিয়েটার এর ১৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ। ‘এসো নাট নন্দনে আলোর ভূবনে’ এই স্লোগান কে সামনে রেখে ১৬ বছরে পদার্পণ করলো বাংলাদেশের প্রথম পূর্নাঙ্গ ক্যাম্পাস থিয়েটার বাঙলা কলেজ যুব থিয়েটার।

“এসো নাট নন্দনে আলোর ভূবনে” এই স্লোগান কে সামনে রেখে ২০০৫ সালে তৎকালীন বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী হাবীব তাড়াশীর উদ্যেগে এবং রোভার স্কাউটের সম্পাদক ও বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনাব কামাল উদ্দিন শামীম এর তত্বাবধানে মন্টু রঞ্জন আকাশ, আনোয়ার হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান আকাশ, আব্দুল হালিম, মাহিনসহ কয়েকজন রোভার স্কাউট সদস্যদের নিয়ে “রোভার থিয়েটার” নামে যাত্রা শুরু কর‌লেও কিছুদিন পর সময়ের প্রয়োজ‌নে ০২ সেপ্টেম্বর “বাঙলা কলেজ যুব থিয়েটার” নামে আত্মপ্রকাশ ঘটে বাংলাদেশের প্রথম পূর্নাঙ্গ ক্যাম্পাস থিয়েটার। যা অল্প‌কিছুদি‌নের ম‌ধ্যে ক্যাম্পা‌সে অন্যতম সাংস্কৃতিক সংগঠন হিসা‌বে আলোড়ন সৃ‌ষ্টি ক‌রে। পরবর্তীতে এটি বর্তমান বাংলাদেশ শিল্পকলা একা‌ডে‌মির মহাপ‌রিচালক ঋত্বিক নাট্যপ্রান লিয়াকত আলী লাকীর সুনজ‌রে পরলে তার ১২ দিন ব্যাপী প্রযোজনাভিত্তিক নাট্যকর্মশালার মাধ্য‌মে “বাংলার মুখ” নাটক নির্মাণ ও মঞ্চায়নের মধ্য দিয়েই সাংস্কৃতিক অঙ্গনের বৃহৎ শাখায় পথচলা শুরু হয়। এই সংগঠনটি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হলো লেখাপড়ার পাশাপাশি মুক্তিযুদ্ধের চেতনায়,দেশীয় সংস্কৃতি চর্চায় সৃজনশীল সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের মাধ্যমে ছাত্রছাত্রী তথা যুব সমাজকে সৃজনশীল, দেশপ্রেমিক, মানবিক নাগরিক হিসেবে গড়ে তোলা।
বাঙলা কলেজ যুব থিয়েটারের এ পর্যন্ত মোট প্রযোজনার সংখ্যা প্রায় ৩৯টি। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য প্রযোজনাসমূহ হলো বাংলার মুখ, মুজিব মানে মুক্তি, জীবিত ও মৃত, রয়েল বেঙ্গল টাইগার, শাস্তি,‌ দৌড়, শহীদ মিনার কথা ব‌লে, সংহ‌তি, চোখে আঙ্গুল দাদা, হরির ইতিবৃত্ত, সবার ওপরে মানুষ সত্য, খাম খেয়ালী সভা, গাঁও গ্রামের কেচ্ছা, শিকড়ে শিহরণ, ঐক্য ইত্যাদি। বাঙলা কলেজ যুব থিয়েটারের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য স‌চিব ও বর্তমান মূখ্য প্রশিক্ষক হাবীব তাড়াশী এই সংগঠনটিকে অনু‌প্রেরণা হিসা‌বে নি‌য়ে এখন সারা দেশব্যাপী তার কার্যক্রম পরিচালনা করে চলছেন। ইতিমধ্যে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর বি‌শেষ সহযোগিতায় এবং হাবীব তাড়াশীর তত্বাবধানে সারা দেশে ৫১ টি ক্যাম্পাস থিয়েটার প্র‌তি‌ষ্ঠিত হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় “শিক্ষা ও শিল্পের আলোয় ২০৪১-এ, পৌঁছে যাবো আমরা উন্নতির শিখরে” এই স্লোগানকে সামনে রেখে সারাদেশের বাছাইকৃত ১২টি ক্যাম্পাস থিয়েটার নিয়ে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে আয়োজন করা হয় ৪ দিন ব্যাপী “প্রথম ক্যাম্পাস থিয়েটার উৎসব-২০১৮” এবং “শিক্ষা ও শিল্পের আলো, ছড়াব আমরা তারুণ্যের জয়গানে” এই স্লোগানে ১৬ টি ক্যাম্পাস থিয়েটার নাটক নি‌য়ে ও ১৫টি ক্যাম্পাস থি‌য়েটার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সহ বি‌ভিন্ন ইভেন্টে অংশ গ্রহ‌ণের মধ্য‌ দি‌য়ে “দ্বিতীয় জাতীয় ক্যাম্পাস থিয়েটার উৎসব -২০২০” অনু‌ষ্ঠিত হয়। দুটি উৎসবের আহবায়ক বাঙলা ক‌লেজ যুব থি‌য়েটা‌রের প্র‌তিষ্ঠাতা সদস্য স‌চিব ও ক্যাম্পাস থি‌য়েটার আন্দোল‌নের কর্ণধার হা‌বিব তাড়াশী, প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী, সভাপতিত্ব করেন বাঙলা কলেজের সুযোগ্য অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. ফেরদৌসী খান। থিয়েটারটি ক্যাম্পাস থিয়েটার উৎসব আয়োজনের পাশাপাশি শিল্পকলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত প্রতিটি যুব নাট্য উৎসবেও অংশগ্রহণ করে । বাঙলা কলেজ যুব থিয়েটার এই পর্যন্ত ২০টির মতো জাতীয় ও আন্তর্জাতিক নাট্যকর্মশালায় অংশগ্রহন এবং ৫০ টির মতো ক্যাম্পাস ভিত্তিক নাট্যকর্মশালার আয়োজন করেছে।
বর্তমানে সংগঠনটির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন সরকারি বাঙলা কলেজের বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক মোহাম্মদ আবুল খায়ের, সহ-সভাপতি হিসেবে আছেন একই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হোমায়রা মোর্শেদা আখতার এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন অর্থনীতি ১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী আতিকুর রহমান। ক্যাম্পাস থিয়েটার আন্দোল‌নের উৎকর্ষতা বাড়াতে ও এগিয়ে নিয়ে যেতে বাঙলা কলেজ যুব থিয়েটার দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। এ বিষয়ে কথা বললে “বাঙলা ক‌লেজ যুব থি‌য়েটা‌র” এর প্র‌তিষ্ঠাতা সদস্য স‌চিব ও বাংলা‌দে‌শ ক্যাম্পাস থি‌য়েটার আন্দোল‌নের প্র‌তিষ্ঠাতা সমগ্রবাংলার তরুন নাট্যকর্মী‌দের প্রা‌ণের মানুষ হা‌বিব তাড়াশী ব‌লেন, ‘২ সেপ্টেম্বর ২০০৫ সালে বাঙলা ক‌লেজ যুব থি‌য়েটার’র প্র‌তিষ্ঠার যাত্রা শুরু। ঘোষনা পত্র পাঠ ক‌রি‌নি, প্র‌তিষ্ঠা ক‌রে‌ছি, যা আজ বাংলা‌দে‌শের প্রথম পূর্নাঙ্গ ক্যাম্পাস থি‌য়েটার হিসা‌বে প্র‌তি‌ষ্ঠিত। বাঙলা ক‌লেজ যুব থি‌য়েটা‌রের ১৫ বছর পূ‌র্তি উপল‌ক্ষে প্রতিষ্ঠা লগ্ন থে‌কে আজ পর্যন্ত বাঙলা ক‌লে‌জের সকল শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী, সহকর্মী ভাই বোন‌দের প্রেমময় শু‌ভেচ্ছা জানা‌চ্ছি কারন আপনা‌দের উৎসাহ ও সহ‌যো‌গিতা আমা‌কে “হা‌বিব তাড়াশী” বা‌নি‌য়ে‌ছে। শু‌ভেচ্ছা জানা‌চ্ছি সমগ্রবাংলার আমার ভা‌লোবাসার মানুষ‌দের,‌ হিংসুক‌দের, অব‌হেলাকা‌রি‌দের। অতি আন‌ন্দে স্বরন কর‌ছি আমার গুরু, নাট্য‌পিতা লিয়াকত আলী লাকী ও কামাল উদ্দিন শা‌মিম স্যার‌কে যা‌দের নাম স্বরণ না কর‌লে অপরাধ হবে। প্রেম প্রকাশ কর‌ছি সরকারি বাঙলা কলেজের বর্তমান অধ্যক্ষ ড.‌ফের‌দৌসী খান ম্যা‌মের প্র‌তি যি‌নি আমা‌কে বৃহৎ ক‌র্মে সর্ব সহ‌যো‌গিতা ক‌রে যা‌চ্ছেন। বাঙলা ক‌লেজ যুব থি‌য়েটার সহ সমগ্র বাংলার ক্যাম্পাস থি‌য়েটারের কর্মী ও শিষ্যদের উদ্দেশ্যে বল‌ছি -পড়া লেখা কর ঠিক ভা‌বে,‌ শিক্ষার শেষ নাই মাইর খাওয়ার বয়স নাই। পৃ‌থিবী‌কে পে‌য়ে‌ছি যেমন রে‌খে যা‌বো তার চে‌য়ে অধিক সুন্দর।’